Breaking News
Home | ইসলাম | ‘ইসলাম আমার সব প্রশ্নের জবাব দিয়েছে, যা বাইবেলে পাইনি’

‘ইসলাম আমার সব প্রশ্নের জবাব দিয়েছে, যা বাইবেলে পাইনি’

আমার নাম অনিতা। আমি একজন আমেরিকান নারী। আমি ২০১০ সালের নভেম্বরে ইসলামে ধর্মান্তরিত হই। আমার জন্ম এমন একটি পরিবারে যেখানে প্রোটেস্টান ও ক্যাথলিক উভয় খ্রিস্টানই রয়েছে। তাই আমি একাধিক গীর্জা এবং খ্রিস্টান স্কুলে অধ্যয়ন করেছি।

এবং বছরের পর বছর বাইবেল অধ্যয়ন এবং ক্যাথলিক ও প্রোটেস্টানদের বিভিন্ন ধরনের গীর্জায় উপস্থিত হওয়ার মধ্য দিয়ে আমার মনে অনেক প্রশ্নের জন্ম দিয়েছিল। আমি শিক্ষকদের জিজ্ঞাসা করেছিলাম যে আমার মনে অনেক প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে। এ নিয়ে তাদের কাছে প্রশ্ন করা হলেও আমি তাদের কাছ থেকে কোনো উত্তর পাই নি।

আমাকে মূলত বলা হয়েছিল: ‘তোমার এই ধরনের প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করা উচিত নয়। তুমি যা জানতে চাইছ তা আমাদের বইয়ের (বাইবেল) অংশ নয়।’ যে কোনো জিনিস সম্পর্কে আপনার মনে জন্ম নেয়া প্রশ্নের জবাব সৃষ্টিকর্তার কাছে রয়েছে।

যখন দেখলাম লোকেরা আমাকে আমার প্রশ্নের জবাব দিতে বা দিকনির্দেশনা দিতে অস্বীকার করছে, তখন আমাকে এমন একটি পথের দিকে অগ্রসর হতে হয়েছে; যেখানে আমি নিজে উদ্যোগী হয়ে এর জবাব অনুসন্ধান করতে শুরু করি। আমি বিভিন্ন ধর্মের অনুসন্ধান করতে শুরু করি এবং তাদের উপাসনার স্থানসমূহ পরিদর্শন করেছি। বিভিন্ন ধর্ম অধ্যয়ন এবং কয়েকটি গ্রুপের সঙ্গে অংশগ্রহণের পর আমি সিদ্ধান্ত নিলাম, ‘আমি এখনো ইসলামের দিকে তাকাইনি, তাই এবার ইসলাম নিয়ে গবেষণার পালা।’

প্রথম দিকে আমি যখন এটির সন্ধান শুরু করলাম, তখন এটি বুঝতে একটু বিভ্রান্তিকর ছিল। তারপর বিষয়টি নিয়ে অনেকের সঙ্গে কথা বলার পর আমি সুস্পষ্ট ধারণা পাই। আমি স্পষ্টভাবে উপলব্ধি করলাম যে এ পর্যন্ত আমার জীবনে যত প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে তার সব জবাবই এখানে যথাযথভাবে দেয়া আছে। তারপর এক সময়ে আমি বুঝতে পারলাম যে আমি কোন পথে যাচ্ছি এবং আমার জীবনের পরিবর্তনগুলো অনুভব করতে পারি।

প্রথমবারের মতো আমি যখন অজু করছিলাম, তখন আমি সত্যিকারের পরিশুদ্ধি অনুভব করলাম। অজু আসলেই রিফ্রেসিং। আমি অনুভব করেছি যে প্রার্থনার জন্য এটি আমার মনকে পরিষ্কার করে দিয়েছে আমি বিশ্বাস করি অন্যান্য ধর্ম থেকে ইসলামকে যে জিনিসটি সহজেই আলাদা করা যায় তা হচ্ছে অজু। এটি পাক-পবিত্র হওয়ার প্রক্রিয়াকে পুনর্ব্যক্ত করে।

আল্লাহ আমাদেরকে পানি দান করেছেন এটা স্মরণ করিয়ে দেওয়ার জন্য যে আমাদের সব সময় পবিত্র থাকতে হবে, বিশেষ করে প্রার্থনার সময়। আমি বুঝতে পারি, অজু কেবল শরীরকেই পরিশুদ্ধি করে না, বরং এটি হৃদয়ের ভিতরটাকেও পরিশুদ্ধি করে। যখন আমরা অজু করার জন্য আমাদের দেহ পানি ঢালি, তা শরীর থেকে গড়িয়ে পরার সঙ্গে সঙ্গে এটি আমাদের পাপকেও ধুয়ে দেয়।
উৎস: অ্যাবাউট ইসলাম
খবরটি শেয়ার করুনClick to share on Facebook (Opens in new window)Click to share on Twitter (Opens in new window)Click to share on Tumblr (Opens in new window)MoreClick to share on Pocket (Opens in new window)Click to share on Telegram (Opens in new window)Share on Skype (Opens in new window)

Related

About admin

Check Also

হাদীসের আলোকে শয়তানের দুই শিং প্রতিদিন কখন উদিত হয় এবং কখন অস্তমিত হয়

হাদীসের আলোকে শয়তানের দুই শিং প্রতিদিন কখন উদিত হয় এবং কখন অস্তমিত হয় দেখুন ভিডীওতে, [embed]https://www.youtube.com/watch?v=UfLCBrHYWBM[/embed]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *