Breaking News
Home | সংবাদ | পালাক্রমে তৃতীয় শিশুকে ধর্ষণ করতে গিয়ে…

পালাক্রমে তৃতীয় শিশুকে ধর্ষণ করতে গিয়ে…

আফসার আলী প্রামাণিক-ছবি: যুগান্তর
বগুড়ার গাবতলীতে দুই শিশুকে ধর্ষণের পর তৃতীয় শিশুর চিৎকারে তাকে ছেড়ে দেন আফসার আলী প্রামাণিক (৬২) নামে এক বৃদ্ধ।

মঙ্গলবার বিকালে উপজেলার নাড়ুয়ামালা ইউনিয়নের দোয়ারপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
এজাহার সূত্র ও স্বজনরা জানান, বগুড়ার গাবতলী উপজেলার দোয়ারপাড়া পূর্বপাড়া গ্রামের বাসিন্দা আফসার আলী প্রামাণিক কৃষিকাজ করেন। মঙ্গলবার বিকালে প্রতিবেশি তিন শিশুকন্যা বাড়ির সামনে রাস্তায় খেলা করছিল।

এ সময় আফসার আলী ওই শিশুদের কলার থোড় ও কচুর শাক দেবার প্রলোভন দিয়ে কৌশলে তাদের ধানক্ষেতের মাঝে নিজের শ্যালো মেশিন ঘরে নিয়ে যায়।
সেখানে পালাক্রমে দুই শিশুকে ধর্ষণ করলে তারা রক্তাক্ত ও আহত হয়। তৃতীয় শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা করলে সে ব্যথায় চিৎকার দিতে থাকে।
তখন আফসার আলী শিশুদের হাতে কলার থোড় ও কচুর শাক দেয়। এছাড়া বাড়িতে না বলতে তাদের ভয়ভীতি দেখান। শিশুরা মেশিনঘর থেকে বের হয়ে কান্নাকাটি করতে করতে নিজ নিজ বাড়িতে ফিরে।

মায়েরা প্রশ্ন করলে তারা ধর্ষণ ও ধর্ষণ চেষ্টার কথা বলে দেয়। ঘটনাটি জানাজানি হলে শিশুদের স্বজন ও গ্রামবাসীদের মাঝে প্রচণ্ড ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।
খবর পেয়ে পুলিশ অভিযান চালিয়ে আজ ভোরে উপজেলার পেরীরহাট থেকে আফসার আলীকে গ্রেফতার করে। বুধবার এক শিশুর বাবা গাবতলী থানায় আফসার আলীর বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে মামলা করেন।
গাবতলী থানার ওসি খায়রুল বাশার জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আফসার আলী পুলিশের কাছে তার অপরাধ স্বীকার করেন। পরে পুলিশ তাকে আদালতের মাধ্যমে তাকে বগুড়া জেলহাজতে পাঠানো হয়। এছাড়া শিশুদের ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে পাঠানো হয়।

About admin

Check Also

সড়ক দুর্ঘটনার নর্থ-সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী নিহত

শীর্ষ নিউজ, জামালপুর: ট্রাক মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে জামালপুরে নর্থ-সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। নিহত শিক্ষার্থীর নাম ফয়সাল মাহমুদ সুপ্ত (১৯)। তিনি শহরের বকুলতলা এলাকার হস্তশিল্প ব্যবসায়ী নিজাম উদ্দিনের ছেলে এবং নর্থ-সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইঞ্জিনিয়াররিং বিভাগের পঞ্চম সেমিস্টারের ছাত্র। এ ঘটনায় সিজান নামে আরো একজন আহত হয়েছেন।  গতকাল শুক্রবার দিবাগত রাত সাড়ে ৯

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *