Breaking News
Home | সংবাদ | মনে হচ্ছে মাথার ছায়া চলে গেছে: প্রধান বিচারপতি

মনে হচ্ছে মাথার ছায়া চলে গেছে: প্রধান বিচারপতি

প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন। ফাইল ছবি
আমার পিতা ছিলেন আমার জন্য গাইড। তিনি ছিলেন আমার শিক্ষক। পিতাকে হারিয়ে মনে হয়, আমার উপর ছায়াও চলে গেছে। আমি নিজেকে মনে করি আমার মাথার উপর যে ছায়া ছিল সেটা এখন আর নেই। বাবা সৈয়দ মোস্তফা আলীর স্মরণসভায় এসে এমন মূল্যায়ন করলেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন।

বুধবার বিকালে সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির অডিটোরিয়ামে প্রধান বিচারপতির বাবা সৈয়দ মোস্তফা আলীর স্মরণসভা ও দোয়া অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।
প্রধান বিচারপতির বাবার জন্য দোয়া কামনায় বাংলাদেশ জাতীয় আইনজীবী সমিতি এ মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করে।
দোয়া মাহফিলে অংশ নিয়ে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন বলেন, আজকে আপনারা এ অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে আমার প্রতি যে সহানুভুতি দেখালেন সেটা আমার আজীবন স্মরণ থাকবে। প্রত্যেক সন্তানের কাছেই তার পিতার মৃত্যু খুবই কষ্টের। পিতা বেশি বয়সে মারা যেতে পারে কিন্তু তারপরও পিতার মৃত্যু সন্তানের জন্য কষ্টকর।

তিনি বলেন, আমার পিতা আমার জন্য গাইড ছিলেন। তিনি আমার শিক্ষক ছিলেন। সুতরাং পিতাকে হারিয়ে আমার মনে হয়, আমার উপর ছায়াও চলে গেছে। আমি নিজেকে মনে করি আমার মাথার উপর যে ছায়া ছিল। সেটা এখন আর নেই। আপনারা আমার বাবার জন্য দোয়া করবেন। আপনার এ সময় আমাকে যেভাব সমবেদনা জানিয়েছেন আমি আপনাদের আজীবন মনে রাখব।

অনুষ্ঠানে সিনিয়র আইনজীবী ড. কামাল হোসেন বলেন, সৈয়দ মোস্তফা আলী ছিলেন সবচেয়ে ভাগ্যবান একজন আইনজীবী। তিনি বেচেঁ থেকে দেখে গেলেন তার এক সন্তান দেশের প্রধান বিচারপতি। একজন আইনজীবীর এর থেকে বেশি কিছু পাওয়ার নেই। নিজের সন্তানকে দেশের প্রধান বিচারপতি হিসেবে দেখে যাওয়া এর থেকে সৌভাগ্যের আর কি থাকতে পারে। আমি মনে করি আল্লাহ ওনাকে এ আয়ু দিয়েছেন তার সন্তানকে প্রধান বিচারপতি হিসেবে দেখে যাওয়ার জন্য।
অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেন, প্রধান বিচারপতির বাবার জীবন স্বার্থক। তিনি সুস্থভাবে বেচেঁছিলেন। ওনি তার সব ছেলে মেয়েকে মানুষ করেছেন। এটা বিরাট ব্যাপার।

বার কাউন্সিলের ভাইস চেয়ারম্যান ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন বলেন, সেই ই সফল একজন পিতা যিনি তার সন্তানকে সঠিকভাবে লালন পালন করে প্রতিষ্ঠিত করে। তার সন্তানেরা আজ প্রতিষ্ঠিত। এটাই প্রমাণ কিরে তিনি একজন সফল পিতা। প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন তার পান্ডিত্য দিয়ে প্রমাণ করবেন তিনি একজন শ্রেষ্ঠ পিতার সন্তান।
দোয়া মাহফিলে আরও বক্তব্য দেন- সিনিয়র আইনজীবী ব্যারিস্টার এম আমীর-উল ইসলাম, অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম, সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি জয়নুল আবেদীন, বার কাউন্সিলের ভাইস চেয়ারম্যান ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন, সিনিয়র আইনজীবী সাবেক আইনমন্ত্রী আব্দুল মতিন খসরু।
এছাড়া দোয়া মাহফিলে অংশ নেন আপিল বিভাগ ও হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতিবৃন্দ এবং সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবীবৃন্দ। পরে তার মরহুম পিতার জন্য দোয়া কামনা করে মোনাজাত করা হয়।
উল্লেখ্য, গত ২৬ জুন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের পিতা সৈয়দ মোস্তফা আলী বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ইন্তেকাল করেন।

About admin

Check Also

ত্রাণ মজুত আছে কিন্তু নেওয়ার মতো মানুষ নেই: ত্রাণমন্ত্রী মায়া

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বলেছেন,  ১২ মাসের মধ্যে ৭ মাসই দুর্যোগে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *