Home | রাজনীতি | ‘বেগম জিয়া-তারেক রহমান নন, জনগণের স্বার্থ নিয়ে কথা বলতে হবে বিএনপিকে’

‘বেগম জিয়া-তারেক রহমান নন, জনগণের স্বার্থ নিয়ে কথা বলতে হবে বিএনপিকে’

বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি বা তারেক রহমানকে জেল থেকে বাঁচানোর জন্য কথা না বলে জনগণের স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয়গুলো নিয়ে বিএনপিকে তার কর্মকা- পরিচালনা করা উচিত বলেন মনে করেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান। আমাদের অর্থনীতির সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, জনগণের যে ইস্যুগুলো রয়েছে তা নিয়ে কথা বলতে হবে বিএনপি। বেগম খালেদা জিয়া বা তারেক রহমানের বিষয়ে কথা বললে মানুষ সমর্থন দেবে না। পছন্দও করবে না। উন্নয়ন, নীতিনির্ধারণী ক্ষেত্রে সরকার কী ভুল করেছে, বিএনপি ক্ষমতায় গেলে কী করবে কথাগুলো মানুষের কাছে স্পষ্টভাবে বলতে হবে। কেবলমাত্র আবেগ দিয়ে কিছু হবে না।

তিনি আরও বলেন, বিএনপি নেত্রী জেলে আছেন, তার মুক্তির জন্য কিন্তু মানুষ আন্দোলনে মাঠে নামেনি। একইভাবে ভোট দিতেও কেন্দ্রে যাবে না। মানুষ এখন তার ব্যক্তিগত ও সামাজিক স্বার্থ্যগুলোই বড় করে দেখে। আগেবীয় স্বার্থের প্রতি মানুষের
এখন আর অতটা আগ্রহ নেই। তা বিবেচনাও করে না। শুধু খালেদা জিয়ার মুক্তি বা তারেক রহমানকে জেল থেকে বাঁচানোর জন্য মানুষ আগামী নির্বাচনগুলোতে ভোট দেবে দলটিকে এমনটি মনে করারও কোনো কারণ নেই। হাওয়া ভবন, একুশে আগস্টের গ্রেনেড হামলার মতো দুঃখজনক ঘটনা আর ঘটবে এমন প্রতিশ্রুতি তাদের জনগণের কাছে দিতে হবে।

এক প্রশ্নের জবাবে ড. মীজানুর রহমান বলেন, জামায়াতের সঙ্গে জড়াজড়ির সম্পর্কে থেকে বিএনপিকে বেরিয়ে আসতে হবে। একইসঙ্গে একটি উদার, গণতান্ত্রিক দল হিসেবে নিজেদের জনগণের সামনে তুলে ধরতে পারলে কেবল হয়তো তখনই জনগণের কাছে দলটি একটি অবস্থান পাবে। কিন্তু বিএনপি যদি আবারও জামায়াত-মৌলবাদীদের সঙ্গে আটঘাট বাধে অথবা পূর্বের ভুলগুলো স্বীকার না করে তাহলে অতীতে যে কারণে তাদের কোনো আন্দোলনেই জনগণ সম্পৃক্ত হয়নি, আগামীতেও তাদেরকে ভোট দিতেও যাবে না। ভোট দেবে না জনগণ।

তিনি বলেন, শত চেষ্টা করেও তো বিএনপি সরকারবিরোধী আন্দোলনের সে ধরনের কোনো ইস্যু তৈরি করতে পারেনি বা আন্দোলনও হয়নি। এখন তাদের যা করতে হবে অধিকতর গণতান্ত্রিক দল হিসেবে পরিচিতি লাভ করার জন্য সংগঠনের প্রতি মনোযোগ দিতে হবে। কমিটিগুলো পুনর্গঠন করে সত্যিকার নেতাকর্মীদের নিয়ে দলটিকে সামনের দিকে এগোতে হবে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা, জামায়াত সঙ্গ ত্যাগ ও অসাম্প্রদায়িক প্রগতিশীল বাংলাদেশের প্রতি আনুগত্যই পারে তাদের ফিরে আসতে ভূমিকা রাখতে।

About admin

Check Also

সামনে মহাবিপদ হবে, সংসদে কাজী ফিরোজ

প্রশাসনসহ সবখানে আওয়ামী লীগ হওয়ার প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য …