Breaking News
Home | স্বাধীন | ‘আবার ক্ষমতায় থাকলে আওয়ামী লীগ আওয়ামী লীগকে খাবে’

‘আবার ক্ষমতায় থাকলে আওয়ামী লীগ আওয়ামী লীগকে খাবে’

কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী বলেছেন, আগামী পাঁচ বছর আওয়ামী লীগ আবার ক্ষমতায় থাকলে আওয়ামী লীগ আওয়ামী লীগকে খাবে। ১৯৭১ সালে যে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে মুক্তিযুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছিলাম, সেই আওয়ামী লীগ এখন নেই।’ আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার সল্লায় দলীয় কার্যালয় উদ্বোধন ও কর্মী সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে কাদের সিদ্দিকী এসব কথা বলেন।

কাদের সিদ্দিকী বলেন, ‘মওলানা ভাসানী, শামছুল হক ও বঙ্গবন্ধুর আওয়ামী লীগ আর নেই। বর্তমানে শেখ হাসিনা কিছু দুষ্ট লোকের হাতে বন্দী হয়েছেন। আমি সাথে থাকলে সেটা হতো না।’কাদের সিদ্দিকী আরও বলেন, ‘যে মুক্তিযোদ্ধারা দেশ স্বাধীন করেছেন সেই মুক্তিযোদ্ধাদের কর্তন করেছে গণবাহিনী। আর সেই গণবাহিনীর নেতা আজ মন্ত্রীসভার সদস্য। আগামীতে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় না গেলে তাদের খুঁজে পাওয়া যাবে না। বিএনপির অবস্থাও করুণ।’

সল্লা ইউনিয়ন কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য দেন দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান তালুকদার খোকা, টাঙ্গাইল জেলা শাখার সভাপতি অ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক এটিএম সালেক হিটলু, কালিহাতী উপজেলা শাখার সভাপতি লুৎফর রহমান সিদ্দিকী, সাধারণ সম্পাদক ইথার সিদ্দিকী প্রমুখ।অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ কালিহাতী উপজেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমান মিনজু। কর্মী সভা শেষে কালিহাতীর পশ্চিমাঞ্চলের সল্লায় দলীয় কার্যালয় উদ্বোধন করেন কাদের সিদ্দিকী। সংবাদ উৎস- দৈনিক আমাদের সময়

উচ্ছৃঙ্খলা তো বরদাশত করা যায় না
উচ্চ আদালতের নির্দেশনা থাকায় সরকারি চাকরিতে মুক্তিযোদ্ধা কোটায় হস্তক্ষেপ করা যাবে না বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘যেখানে হাইকোর্টের রায় আছে যে মুক্তিযোদ্ধাদের কোটা ওইভাবেই সংরক্ষিত থাকবে, তাহলে হাইকোর্টের রায় আমরা কীভাবে ভায়োলেট করব?’
আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় জাতীয় সংসদে বাজেট অধিবেশনের সমাপনী বক্তব্যে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। আর আন্দোলনের নামে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারী শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘কোটা সংস্কার আমরা করব। আমি তো বলেছিলাম, টোটাল বাদ দিতে। হাইকোর্টের রায় আছে। হাইকোর্টের রায় অবমাননা করে তখন তো আমি কনটেম্পট অব কোর্টে পড়ে যাব। এটা তো কেউ করতে পারবে না। কিন্তু আমরা তো কেবিনেট সেক্রেটারিকে দিয়ে একটা কমিটিও করে দিয়েছি। তারা সেটা দেখছেন। তাহলে এদের অসুবিধাটা কোথায়? আমার সেখানে প্রশ্ন।’
খবরটি শেয়ার করুন

About admin

Check Also

জনসভা থেকেই ‘কর্মপন্থা-কর্মসূচি’ ঘোষণা করবে বিএনপি

বিএনপির পূর্বঘোষিত আগামী শনিবারের জনসভায় দলের ভবিষ্যত কর্মপন্থা ও কর্মসূচির কথা জানানো হবে বলে জানিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।বুধবার (২৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। এর আগে এক যৌথ সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে অংশ নেন ঢাকা জেলা, গাজীপুর, টাঈাইল, মুন্সিগঞ্জ, ঢাকা মহানগর বিএনপিসহ বিএনপির অঙ্গ ও সহযো

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *