Home | টেলিগ্রাফ | মোটরসাইকেল ‘চুরির সময়’ হাতেনাতে আটক পুলিশ সদস্য

মোটরসাইকেল ‘চুরির সময়’ হাতেনাতে আটক পুলিশ সদস্য

টাঙ্গাইলে মোটরসাইকেল চুরির অভিযোগে পুলিশের গাড়ি লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করেছে ক্ষুব্ধ জনতা। সোমবার বিকালে ৩টার দিকে শহরের টাঙ্গাইল প্লাজা মার্কেট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।অভিযুক্তরা হলেন- টাঙ্গাইল মডেল থানার অফিসার ইনচার্জের (ওসি) গানম্যান পুলিশ সদস্য কালাম ও তার সহযোগী রবি।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, টাঙ্গাইল প্লাজা মার্কেটের সম্মুখ থেকে একটি মোটরসাইকেল চুরির সময় মডেল থানায় কর্তব্যরত পুলিশ সদস্য কালাম ও তার সহযোগী রবিকে হাতেনাতে আটক করে দোকানদারা। এ সময় আটককৃতদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে মার্কেটের ছাদে নিয়ে আটক রাখে মার্কেট কর্তৃপক্ষ।

পরে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসেন টাঙ্গাইল সদর মডেল থানার কয়েকজন পুলিশ সদস্য। পরে তারা ওই পুলিশ সদস্য ও তার সহযোগীকে হেফাজতে নিতে চাইলে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়।একপর্যায়ে ওই দুজনকে পুলিশের গাড়িতে উঠালে ক্ষুব্ধ জনতা তাদের লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করতে শুরু করে। পরে পরিস্থিতি অস্বাভাবিক দেখে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে পুলিশ সদস্যরা।
পুলিশ সদস্যরা এর আগেও এই ধরনের ঘটনা ঘটিয়েছে বলে অভিযোগ করেন দোকানদারা।টাঙ্গাইল প্লাজা মার্কেটের সভাপতি বাবুল তালুকদার বলেন, ঘটনাটি মসজিদ মার্কেটের হলেও গণপিটুনি থেকে বাঁচাতে পুলিশ সদস্য কালামসহ অপরজনকে টাঙ্গাইল প্লাজা মার্কেটে আটক রাখা হয়। একইসঙ্গে পুলিশকে খবর দেয়া হয়।তিনি জানান, খবর পেয়ে পুলিশের কয়েকজন সদস্য ঘটনাস্থলে এসে আটক পুলিশ সদস্য কালাম ও তার সহযোগীকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যান।

জানতে চাইলে টাঙ্গাইল মডেল থানার ওসি সায়েদুর রহমান বলেন, আমি ও আমার গানম্যান কালাম টাঙ্গাইল প্লাজার সামনে মন্টু শাড়ির দোকান থেকে শাড়ি কিনতে যাই। তবে এর আগে আমার গানম্যান কালাম মার্কেটের সামনে মোটরসাইকেল নিয়ে উপস্থিত ছিল।
তিনি বলেন, আমার কেনাকাটায় বেশ কিছুক্ষণ সময় লাগবে বলে কালাম তার পরিচিত রবি নামের এক ছেলেকে তার মোটরসাইকেলটি নিয়ে থানায় রেখে আসতে বলে। রবি মোটরসাইকেলের চাবি নিয়ে মার্কেটের সম্মুখে যায় এবং মটর সাইকেলটি চাবি দিয়ে খোলার চেষ্টা করে।

ওসি দাবি করেন, গানম্যানের মোটরসাইকেল ও চাবি দিয়ে খোলার চেষ্টা করা মোটরসাইকেলটি একই রঙয়ের হওয়ার কারণে ভুলবশত এ ঘটনাটি ঘটে।তিনি বলেন, এছাড়াও ওই মোটরসাইকেলের মালিক মোটরসাইকেল চুরি হচ্ছে বলে চিৎকার দেয়ার ফলে জনতা উত্তেজিত হয়ে আটককৃতদের গণপিটুনি দেয়া শুরু করে।

তবে ওসি জানান, চোর সন্দেহে আটক দুজনকে মার্কেট কর্তৃপক্ষ নিরাপদে আটক রেখে মডেল থানায় খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে দুজনকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। উৎস- পরিবর্তন
খবরটি শেয়ার করুন

About admin

Check Also

‘দিল্লি লুটের সময়ও এত টাকা লুট হয়নি’

দেশের ব্যাংক ও আর্থিক খাতের বিশৃঙ্খলা ও অনিয়ম নিয়ে জাতীয় সংসদে বিরোধী দল জাতীয় পার্টি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *