Breaking News
Home | সারাদেশ | সাংবাদিকদের প্রশ্নে সরাসরি হাসপাতালে ফোন দিলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী

সাংবাদিকদের প্রশ্নে সরাসরি হাসপাতালে ফোন দিলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী

বাংলাদেশ হেলথ রিপোর্টার্স ফোরাম বিএইচআরএফ এবং বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন বিএমএ’র যৌথ আয়োজনে ‘মিট দ্য প্রেস’ অনুষ্ঠানে মন্ত্রী তাৎক্ষণিক কিছু প্রশ্নোত্তর দেয়।

মোহাম্মদ নামের এক শ্রমিক আহত হলে সঙ্গে সঙ্গে রাজধানীর মুগদা হাসপাতালে নেয়া হয় তাকে। হাসপাতালের জরুরি বিভাগের দায়িত্বরত চিকিৎসক জানান পায়ে মারাত্মক আঘাত লেগেছে তাই এক্সে-রে করতে হবে। কিন্তু এখানে (মুগদা ৫০০ শয্যা হাসপাতাল) দুপুর ১২টার পর এক্স-রে বন্ধ হয়ে যায়। তাই তিনি পরামর্শ দেন পাশের বেসরকারি কোনো হাসপাতাল থেকে এক্স-রে করার।

আহত মোহাম্মদ ঠিকমতো দাঁড়াতে না পরলেও অটোরিকশা নিয়ে পাশের এক বেসরকারি হাসপাতালে এক্স-রে করে ঘণ্টাখানেক পর মুগদা মেডিকেলে ফিরে আসেন। এবার চিকিৎসক বলেন- দুই পায়ের হাড়ে সমস্যা হয়েছে। ভর্তি হতে হবে। সরকারি হাসপাতালে এরকম শত শত মানুষ ভোগান্তিতে পড়লেও সহসায় সমাধান মিলে না।

এ বিষয় নিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমের কাছে সাংবাদিকদের প্রশ্ন সরকরি হাসপাতালে দুপুর ১২টার পর এক্স-রে বন্ধ করে দেয়া হয়। এটা কি নিয়ম অনুসারে ‘করা হয়’। তা না হলে হাসপাতালের জরুরি বিভাগে কেন ২৪ ঘণ্টা এক্স-রের ব্যবস্থা থাকছে না।

প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, এটা ঠিক না। আমি ফোন করে জেনে বলছি। এ সময় সঙ্গে সঙ্গে মুগদা হাসপাতালে মন্ত্রী ফোন করার পর কর্তৃপক্ষ বলেন আপনি (মন্ত্রী) দেখতে পারেন আমাদের এখানে বিকেল পর্যন্ত এক্স-রে করা হয়। উত্তরে মন্ত্রী বলেন আমি গেলে তো এক্স-রে হবেই, আমার অনুপস্থিতে আপনারা কি করেন।

এছাড়া ঝুঁকিপূর্ণ গর্ভবতী নারীদের উন্নত চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ফিটো-ম্যাটারনাল মেডিসিন ইউনিট চালু করা হলেও সেখানে এ বিষয়ে বিশেষজ্ঞ কোনো চিকিৎসক নিয়োগ দেয়া হয়নি। যার কারণে রোগী ভর্তি হলেও কাঙ্ক্ষিত সেবা মিলছে না।

কিন্তু ফিটো-ম্যাটারনাল মেডিসিন বিষয়ে পড়াশোনা করা দেশে একমাত্র চিকিৎসক থাকলেও তাকে টাংগাইলে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। মেডিকেল কর্তৃপক্ষ স্বাস্থ্য সচিবের কাছে এ বিষয়ে চিঠি দিলেও কোনো সমাধান মেলেনি।

বিষয়টি মন্ত্রীকে জানানো হলে তিনি বলেন, এ ঘটনা জানা নেই। দাঁড়ান এখনি ব্যবস্থা নিচ্ছি। সঙ্গে সঙ্গে তিনি ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে ফোন করেন। বিষয়টি কেন জানানো হয়নি জানতে চাওয়া হয়। পরে মন্ত্রী বলেন শিগগিরই এ সমস্যার সমাধান হবে।

এ সময় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব হাবিবুর রহমান খান, বিএমএ সভাপতি ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন এবং মহাসচিব ডা. এহতেশামুল হক চৌধুরী দুলাল, বিএইচআরএফ এর সভাপতি তৌফিক মারুফ এবং সাধারণ সম্পাদক নিখিল মানকিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

About admin

Check Also

নির্বাচনের আগে সংলাপের সুযোগ নেই: ইসি সচিব

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে দেশের প্রধান দুই রাজনৈতিক দলের মধ্যে সংলাপের আর সুযোগ নেই বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ। বৃহস্পতিবার (১৬ আগস্ট) দুপুরে তিনি আরও জানান, জাতীয় নির্বাচনের ৮০ ভাগ প্রস্তুতি এরই মধ্যে সম্পন্ন হয়েছে। বিস্তারিত আসছে...